কায়েস মাহমুদ স্নিগ্ধ নোয়াখালির ভাষায় অনুবাদ করেছেন ‘প্রচণ্ড বৈদ্যুতিক ছুতার’

“ওরে মারে মরি যাইয়ুম মরি যাইয়ুম মরি যাইয়ুম।

আঁর সামবা জ্বরি যারগই দারুয়ার আগুনে।

আঁই কিত্তাম, কোনায় যাইতাম কইতাম হারি না,

দিলের ভিত্রে শান্তি আইয়ে না এক্কানাও।

এগিন হুঁথি মুঁতিত লাইত্থাই চলি যাইয়ুম রে শুভা।

শুভা আঁরে এক্কানা তোঁর ভিত্রে চলি যাইতে দে,

গেঁডিতে গেঁডিতে আঁডি যাইতে দে।

আন্দারের ভিত্রে রাইত নামাইন্না

আন্দারের ভিত্রে মশাইর টানাইন্না

ছামার মইদ্যে,বেজ্ঞিন নাও চলি গেসে, অন এই নাওগাও চলি

যারগই গাঁডের কিনারের তুন।

উফঃ আর হারি না রে,

লাগে য্যান খালি গেলাস বাংগের।

শুভা ভোদা খুলি আঁর দুয়ারে খাড়া,

সুখ দে শুভা, তোরে সুদি।

গিরার গিরার কান্দন খালি চলি আইয়ের আঁর দিলের গোড়াত।

বিমারে বিমারে হঁসি গেসে আঁর গিলু বরা গরম ঠাডা।

এরে মা, তুঁই আঁরে খালি আড্ডিত কেন হ্যাডে লইলি না?

গোসত দিসত গাত,

নইলে তো দুই কুটি সন ঠাউরের হোন্দে চুম্মাচুম্মি কইতাম,

ওরে মা। আঁর বালা লাগে না, আঁর আর কিছুই বালা লাগে না।

গন গন চুম্মাইলে আঁর গা গিনগিনায়,

সুদতে সুদতে বেডিরে থুই রঙ তামশাত চলি আইসি ম্যালা দিন

আঁর কইবতার ঠকঠকাইন্না খাড়াইন্না হ্যাডায়।এগিন কিয়া অইতে আছে,

কিয়া অইতে আসে আঁর সিনার বিত্রে ওরে ঠাউরবেজ্ঞিন বাংগি গুড়াগুড়া করি হালামু,

বাংগি হালামু এরে মাদারচোতের হুতবাংগি হালামু

তোগো ডঙের নাচন কোন্দনআঁই কইদিলাম উডাই আনমু শুভারে,

আঁর শুভা, আঁর শান্তির শুভা।

হেতিরে গুঞ্জাই থোনের তুই কোনাইগার মাংতার হুত হালা?

About Hungryalist Archive

Keep reading and get enlightened
This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s